শুক্রবার, ০৯ Jun ২০২৩, ০৬:০২ অপরাহ্ন

পলি শাহীনা এর ৩টি কবিতা

পলি শাহীনা এর ৩টি কবিতা

পলি শাহীনা এর ৩টি কবিতা

১. মুক্তি
সকল নিয়মের জটিল গ্রন্থি ভেঙে ভেঙে আমি,
আকাশের ঐ উদারতাকে ছুঁবোই শেষে।
মুছে দেবো স্বচ্ছ দেয়ালে প্রলেপের কাঁচা রঙ,
কষ্টগুলো প্রতিমা করে নদীতে বিসর্জন।
কোন এক আনকোরা ভোরের শীতল বাতাসে
উড়িয়ে দেব ক্লান্তি আর ক্লেদের অহেতুক পাখি।
প্রিয় জবা, কদম আর জলজ কচুরি ফুলে
ভাসাবো সাজিয়ে জীবনের সবুজ ভেলা।
একদিন জীবন শুধুই হাসবে আর চেয়ে নিবে
জোরালো তাগিদে হাতের মুঠোয়
তার বাড়ানো হাত, আমার প্রিয় হাত।
দরাজ কন্ঠে শংখচিলের ডানায় গাইবে বাতাস
আমার শ্বাসগুলো জীবন পাবে মুক্ত সে হাওয়ার দোলায়
আমি হবো মুক্ত ও স্বাধীন, হাত ধরাধরির সেই পথে।

২. অচেনা অনুভূতি
আজকাল বুকের ভেতর একধরনের অচেনা অস্থিরতা বোধ করি।
শুধু মনে হয় চারপাশে যা দেখছি সবি বিভ্রম।
আজ,গতকাল কিংবা আগামীকাল সবকিছু ঘোরে ঢাকা।
অদ্ভুত লাগে এ জীবনচক্র, এ নশ্বর পৃথিবী।
মনে হয় কোথায়ও কেউ নেই, কিছু নেই।
নিজেকে খুব একা লাগে ঠিক আকাশের মতন,
মাঝরাতে ঝরে পড়া নীরব বৃষ্টি ফোঁটার মতন,
সিগারেট ঠোঁটে শেষরাতে একাকী হেঁটে যাওয়া পথিকের মতন,
একা অবিচল দাঁড়িয়ে থাকা গাছটির মতন।
কিছুই মনোযোগ কাড়তে পারেনা, ভালো লাগে না।
কোন কিছুর প্রতি মায়া নেই। জেনে গেছি সবি অস্থায়ী।
ছুঁতে গেলেই ঝরে যায় নিঃশব্দে, শিশিরের মতন।

৩. শূন্যতা
আজ আবার তোমাকে দেখছি, বহু বহুদিন পর,
তোমাকে দেখছি তোমার মুখে আকাশ দেখছি,
তুমি মানেইতো আমার আকাশ বিশুদ্ধ অনুভূতি,
তোমার বুকে কালপুরুষ, সন্ধ্যাতারা, সপ্তর্ষি।
আকাশ শুধু দেখা যায় ছোঁয়া যায় না,
হাত বাড়িয়ে ধরতে গেলেই শূন্যতা।
আমাদের মাঝখানে যে অসীম দূরত্ব,
একজীবন দৌড়ালেও তা ঘুচবে না।
তোমার মতো আমিও দুঃখ এড়িয়ে চলি
বুকের ঘরে আকাশটিকে ধারণ করেও তাই,
ছোট্ট করেও আকাশের দিকে হাত বাড়াই না।
ভালোলাগা কিংবা ভালোবাসার দাবীতেও না।

শেয়ার করুন ..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © পাতা প্রকাশ
Developed by : IT incharge