মঙ্গলবার, ০৬ Jun ২০২৩, ০৩:১৪ পূর্বাহ্ন

মা-খন্দকার ফখরুল আনাম বেঞ্জু

মা-খন্দকার ফখরুল আনাম বেঞ্জু

মা
খন্দকার ফখরুল আনাম বেঞ্জু

আমার “মা” খন্দকার মজিদা করিম (খুকী) ১৯৮৭ সালের ৪ এপ্রিল আমাদের ছেড়ে নাফেরার দেশে চলে যান ভোর ৬.১৫ টায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মরন ব্যাধী ক্যান্সারের সাথে যুদ্ধ করে পরাজিত হলেন (ইন্না-লিল্লাহ.. রাজিউন)
দীর্ঘ ৩৩ বছর “মা” তোমাকে ছাড়া আমাদের অনেক বড় শুন্যতা – বার বার খুঁজে-ফিরি তোমার ছায়া। তোমার কোলে মাথা রেখে ঘুমাতে ইচ্ছে করে, ইচ্ছে করে ক্লান্ত শরীরে ঘামে ভেজা মুখটা তুমি মুছে দিতে মমতার আঁচল দিয়ে – ইচ্ছে করে ভীষন ইচ্ছে করে “মা” বলে ডাকতে- কতদিন “মা” বলে ডাকিনা “মা”… হারোডাঙ্গার তোমার স্মৃতি ঘেরা বাড়ীতে আজও যাই তেমার খাট তোমার আলমারি নাড়িকেল, সুপারি বাগান, সবজি বাগান..শুধু তুমি নেই “মা”। আজও তোমার প্রিয় হারোডাঙ্গা, অন্নদানগর, পীরগাছার অসংখ্য নাতি নাতনি ভাগ্না ভাগ্নি ভাতিজা ভাতিজী ভাই বোন অজান্তেই চোখের জ্বল ফেলে প্রিয় ফুপু খালা বোন ভাই ও দাদিআম্মার জন্য।
“মা” আজও পুকুর পারে সারি সারি গাছ আজও দাঁড়িয়ে আছে বকুল ফুলের গাছ দুটি যেন তোমার শুন্যতাকে মনে করিয়ে দেবার জন্য আগের মতো আর সাদা চাদরে ফুলে ফুলে ভরিয়ে দেয়না সবুজ ঘাস। মাগো মনে পরে বকুল তলায় দাঁড়িয়ে পলকহীন তাকিয়ে দেখতে আমার চলে যাওয়া… আমি ফিরে ফিরে তাকাতাম আর দেখতাম তোমার বেনুকে বিদায় বেলার হাতনাড়া আজও আমাকে কাঁদায়…
“মা” আমার কষ্ট জীবনের প্রথম ইনকাম তোমার হাতে তুলে দিতে পারিনি আমার কষ্ট আমার ময়না বধুবেসে তোমা পা ছুয়ে সালাম করতে পারেনি আমার কষ্ট তোমার বেনুর অর্পিতা অর্পন দাদি বলে ডাকতে পারলোনা। পেলোনা তোমার স্নেহ মায়া,মমতার ছায়ায় শিক্ত হতে অর্পন আর অর্পিতা।
” মা” তুমি চলে যাবার পর -চলে গেল তোমার নবাব,নুরী, আনাম,মঞ্জু সঞ্জু, নঞ্জু । ওরা একবোন পাঁচ ভাই ঘুমিয়ে আছে । জেগে আছি আমারা রুবী, রোজী, রুনি, আঞ্জু, রুহি , নিরু আর তোমার বেনুবাবা… তোমার স্নেহ আদর পাগল নাতি নাতনি।
হাসপাতালের শেষ দিনে বলেছিলে.. বাবা পারলে মানুষের বিপদে পাশে থাকবি, ভালবাসবি মানুষকে.. তোমার আদেশ তোমার অনুপ্রেরণা আমার শক্তি আমার সাহস.. তাইতো ছুটেচলা আমার… আমরা তোমার উত্তরসুরী তোমার আদর্শকে বুকে ধারন করে জেগে আছি মা…
মাগো, বাবার, দাদার, দাদীর, বড় আব্বার কবরের উপ আজও ছায়া দেয় খেজুর গাছটি… তোমাদের কবরের পাশে মসজিদের আজানের সুমধুর সুর বেজে ওঠে… পাঁচ ওয়াক্তের নামাজের শেষে বলি রাব্বির হামহুমা কামা রাব্বাইয়ানী সাগিরা…
মহান রাব্বুল আলামিনের কাছে মোনাজাত করি
“মা ” তোমাকে জান্নাতুল ফেরদৌস দান করুন… আমিন
আমিন । আত্নীয়, স্বজন, বন্ধু শুভানুধ্যায়ী সবাই মা’র জন্য দোয়া করবেন।

শেয়ার করুন ..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © পাতা প্রকাশ
Developed by : IT incharge