সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ০৩:২১ পূর্বাহ্ন

মাসুদ বশীর এর পাঁচটি কবিতা

মাসুদ বশীর এর পাঁচটি কবিতা

মাসুদ বশীর এর পাঁচটি কবিতা

কবিতা

বিচিত্র বৈভবে কাটছে দিনকাল।
আমার উনি রেগেমেগে তেড়ে আসেন!(?)
অতিআদুরে প্রতিপ্রজন্মও উগরে দেয় ফেরেস্তা বচন।
প্রধান কবি বলে ওঠেন ঝর্ণা আমার আঙুলে…
আমি বলি নজরুল আমার আঙুলে গান করে।
বিনম্র শ্রদ্ধা ঝরে….
সাদা কাগজগুলো হাসতে থাকে হাসতেই থাকে!
তারপর,
কি জানি কি হলো, জানা গেলোনা কিছুই।
কেমন করে যেন তা কবিতা হয়ে যায়…

আইডি কার্ড

এই তুমি কে? এ ঘর তোমার না!
এই তুমি কে? এ মহল্লা তোমার না!
এই তুমি কে? এ শহর তোমার না!
এই তুমি কে? এ দেশ তোমার না!
এই তুমি কে? এ পৃথিবী তোমার না!
মানুষ আমি কে? আমার মা কে?
মানুষ আমি কে? আমার বাবা কে?
মানুষ আমি কে? আমার ভাই-বোন কে?
মানুষ আমি কে? আমার পরিজন কে?
মানুষ আমি কে? আমার বান্ধব কে?
মানুষ আমি কে? আমার সন্তান কে?
মানুষ আমি কে? আমার আমি কে?
এ কোন অদ্ভুত অলীক বাস্তবতায় দাঁড়িয়ে কাল?
এ কোন খেলাঘরে খেলার পাশা খেলছে মহাকাল?
স্বাধীনভাবে কোথাও যাওয়া হবেনা থাকাও যাবেনা
তাহলে, যাওয়া-থাকা কোথা হোথা!
সবাই সবার থেকে নিরাপদ দূরত্বে, যেন অচেনা কোন এক ঘাতক প্রাণনাশে ঘুরছে তো ঘুরছে….
যাও আগে স্নান সারো স্নানাগারে, না হয় অন্তত দুহাত ভালো করে সাবান কচলিয়ে ধুয়ে আসো স্বচ্ছজলে।
তারপর দেখা যাক পরিচয় কি পরীক্ষাগারে পাঠিয়ে?
তুমি-আমি আসলে কে? আমরা মানুষ নাকি এলিয়েন..

কথোপকথন

এই শোন, গায়ে-গায়ে ঘুরিস ক্যান?
মন চায় চোখ যায়
অযুত ঐ নীলিমায়…
এই শোন, এতো কথা বলিস ক্যান?
ভালোবাসা।
ঐ রোদ্দুর কাছে আসা
স্বপ্নে-স্বপ্নে শুধুই ভাসা…
এই শোন, তোর কি কোনোই কাজ নাই?
ভাঁজ-ভাঁজ কতো যে কাজ
পরছে ঝরে মাথায় তাজ…
এই শোন, এতো কিছু লিখিস ক্যান?
কে ব’লে লিখি বলা যে শিখি
বলতে বলতে চলতে শিখি…
এই শোন, আমার পরাণ কারলি ক্যান?
আহা…কি ব’লে এমন? আমি অতি ক্ষুদ্রজন।
এতোই ক্ষুদ্র অনু-কণা!
প্রেম-পিয়াসী তুলছে ফণা?
এই শোন-
যা করার কর
দিলাম স্বচ্ছ বর
যখন তখন চমকে আসিস
হৃদয় টা তরপর…

প্রেম

তোমারে বলি কবিতার কথা
তুমি প্রতিউত্তরে বলো-
তুমিই তো সেখানে ছিলে
তোমারে বলি আকাশের কথা
তুমি প্রতিউত্তরে বলো-
তুমিই তো নীলের গভীরে
তোমারে বলি সাঁঝের কথা
তুমি প্রতিউত্তরে বলো-
তুমিই তো আলো জ্বলজ্বল শুকতারা
তোমারে বলি আমার কথা
তুমি প্রতিউত্তরে কিযে বললে?
বৈরী হাওয়ায় ভেসে গেলো একটুকরো সাদা কাগজ
ঐ-
অন্তহীন অসীমনীলে…

সাজা

কোনো তানাবানা চলবে না।
কাছে এলেই বসিয়ে দেবো হিংস্র হায়েনার দাঁত
অথবা
কিং-কোবরার বিষাক্ত ছোবল…
ভেবেছো টা কি?
তুমি-
গিরগিটি হয়ে চষে বেড়াবে আমার মানচিত্র ব্যেপে…
আর আমি ঘরে বসেবসে আঙুল চুষবো?
তা হবার নয় হে জারজ শয়তান!

শেয়ার করুন ..

Comments are closed.




© All rights reserved © পাতা প্রকাশ
Developed by : IT incharge