মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৩:৩৫ অপরাহ্ন

বই আলোচনাঃ কক্সবাজারের মাছলি বাবা (শিশু কিশোর রহস্য রোমাঞ্চ উপন্যাস) লেখকঃ রানা মাসুদ-মাসুদ বশীর

বই আলোচনাঃ কক্সবাজারের মাছলি বাবা (শিশু কিশোর রহস্য রোমাঞ্চ উপন্যাস) লেখকঃ রানা মাসুদ-মাসুদ বশীর

বই আলোচনাঃ কক্সবাজারের মাছলি বাবা
(শিশু কিশোর রহস্য রোমাঞ্চ উপন্যাস)
লেখকঃ রানা মাসুদ
মাসুদ বশীর

লকডাউন। আবদ্ধ মন বিরুদ্ধ সময়। মনটাকে একটু দূর ভ্রমণে নিয়ে যেতে ইচ্ছে হলো, সাথে যুক্ত হলো একটু রহস্য রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা আহরনের অভিপ্রায় এবং তারসাথে একটা বন্ধুত্বের আবদার তো ছিলোই।
বহুমাত্রিক লেখক, কবি, সু-সাহিত্যিক বন্ধু রানা মাসুদ’র রহস্য রোমাঞ্চ উপন্যাস- “কক্সবাজারের মাছলি বাবা” অনেক মন সংযোগে পাঠ করলাম এবং যথারীতি ভালো লাগলো। রানা মাসুদ সবসময়ই ভালো লেখার চেষ্টা করেন, এই রহস্য উপন্যাসের ক্ষেত্রেও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। ধারাবাহিক উপন্যাস হিসেবে এটি তার দ্বিতীয় পার্ট। প্রথমটি ছিলো “দার্জিলিংয়ের ডোবারম্যান”। ধারাবাহিকতা অক্ষুণ্ণ রাখার ক্ষেত্রে উপন্যাসিক সুন্দরভাবে তা ধরে রাখতে এখানে তার যথেষ্ট যত্নশীলতা ও মুন্সিয়ানার পরিচয় রেখেছেন। গল্প বলা, প্লট বিন্যাস খুবই চমৎকার। রহস্য উপন্যাস হলেও বর্তমান সামাজিক প্রেক্ষাপট উপন্যাসটিতে ফুটে উঠেছে দারুণভাবে। পারিবারিক, সামাজিক ও বন্ধুত্বের বন্ডিংগুলো যেন হারিয়ে না যায় সেটিরও একটি ইঙ্গিতবহ বার্তা দেয়ার চেষ্টা করেছেন উপন্যাসিক। রহস্য উপন্যাস লিখতে হলে লেখকের অতিশয় বিশ্লেষণ ক্ষমতা ও অনুসন্ধিৎসু দৃষ্টিভঙ্গীর প্রয়োজন, সেক্ষেত্রে রানা তার সহজাত বোধ দিয়ে গল্পটি সৃষ্টি ও চরিত্র নির্মাণে চমৎকারিত্বের ছাপ রেখেছেন। ‘কক্সবাজারের’ ‘মাছলি’ ‘বাবা’ এই তিনটি শব্দের ভেতরেই গড়ে উঠেছে ড্রামা, যার পরিনতি শেষ পর্যন্ত সার্থক বলা যায়। যেমনঃ কক্সবাজারের আলোচনায় সেখানকার পরিবেশ-পরিস্থিতি, সাথে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকতের আলোচনা-বিশ্লেষণ, পাঠক কে একদম সেখানেই নিয়ে যাবে নিবিড়ভাবে এবং কক্সবাজার সম্পর্কে অনেক অজানা তথ্য জানিয়ে দেবে। ‘মাছলি’ এবং ‘বাবা’ শব্দ দুটির মাধ্যমে লেখক সমসাময়িক অনৈতিক বিষয়ের একটা সত্যচিত্র এঁকেছেন অতীব সাবলীলতায় যত্নের সাথে। উপন্যাসটির গতি চমৎকার, তবে কিছু ক্ষেত্রে বাক্য প্রক্ষেপণে একটু আড়ষ্টতা লেগেছে, এখানে মনে হয়েছে লেখক তারাহুরো করতে গিয়ে সমস্যাটির সৃষ্টি হয়েছে, তবে তা গল্পটি বলার বেলায় পাঠকের তেমন বেশি খাপছাড়া অনুভব হবেনা। লেখক একজন কবি হওয়ার কারণে উপন্যাসটিতে কাব্যময়তার একটা ছোঁয়া অনুভূত হবে সাথে রহস্য রোমাঞ্চ তো সাবলীলভাবে থাকছেই। বইটির মুদ্রণ, গেটআপ যথেষ্ট উচ্চমানের, সাথে নজরকাড়া প্রচ্ছদ একদম অতুলনীয় লেগেছে। মুদ্রণ প্রমাদ তেমন নেই বললেই চলে।
ধন্যবাদ রানা মাসুদ, এমন সুন্দর একটি শিশু কিশোর এডভেঞ্চার উপন্যাস উপহার দেয়ার জন্য। আমি লেখকের সুদীর্ঘ সুস্থ জীবন ও উত্তরোত্তর আরো সুন্দর সৃষ্টি ও সমৃদ্ধি কামনা করছি।
“কক্সবাজারের মাছলি বাবা” আনন্দ নিয়ে পড়ে আমার বেশ ভালো লাগলো। সম্মানিত পাঠকদেরও আমি বইটি সংগ্রহ করে পড়ার জন্য বিশেষভাবে আহবান রাখছি।
বইটি প্রকাশ করেছেঃ ঢাকার বাবুই প্রকাশ,
সুন্দর প্রচ্ছদ করেছেনঃ মৌমিতা কর মৌ,
প্রকাশ কালঃ নভেম্বর ২০১৯,
মূল্যঃ ১৮০ টাকা।

সারা দেশের অভিজাত লাইব্রেরিগুলোতে “কক্সবাজারের মাছলি বাবা” বইটি পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়াও অনলাইনে রকমারি.কম এর মাধ্যমেও বইটি সংগ্রহ করা যাবে।

শেয়ার করুন ..

Comments are closed.




© All rights reserved © পাতা প্রকাশ
Developed by : IT incharge