সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ০৯:৩৪ অপরাহ্ন

জয়িতা চট্টোপাধ্যায়র ৩টি কবিতা

জয়িতা চট্টোপাধ্যায়র ৩টি কবিতা

১. দেনা পাওনা

মর্মে গাঢ় দেনা নিয়ে বেঁচে আছি
বিষন্ন, অদৃশ্য সমস্ত দেখা
অসমান খোয়াই অন্দরে বয়ে চলে
তোমার যতটা প্রাপ্য তার চেয়েও অধিক দিয়েছি
মধ্যবিত্ত মায়া শরীরে শরীরে
কতো তুচ্ছ ক্ষতির হিসাব করিনি অসাধ্য দেনায়
ঘামরক্তে সর্বক্ষণ এক যন্ত্রনা বয়ে বেড়ানো
শরীরকে শরীরের ভেতর লুকিয়ে রাখাই সার্থকতা
মীমাংসাহীন কতো গূঢ় অভিপ্রায় বাকি রয়ে গেল
গুপ্ত কঠিন যন্ত্রনা যেভাবে ভেতরকে দেউলিয়া করে দেয়
বড় শুষ্ক আজ সমস্ত পরিপাটি, বাহুল্য বিন্যাস
আমারই চারপাশে সবকিছু ইতস্তত, বিক্ষিপ্ত বিপুল
আজ ফেলে রেখে গেছি খোলা ঘর হা করা কপাট দিনে
প্রাপ্যর চেয়েও বেশি কিছু পেলাম অপার্থিব ঋণে।

২. ইচ্ছে

তোমার প্রতিবার স্পর্শে
আমার ভেতর,পাতা থরথর হাওয়ায় কাঁপে
ইচ্ছেরা জেগে ওঠে
ওলোট পালট হয়ে যায় কোমল মাটি
এক রহস্য তোমার স্পর্শ বুক
কঠিন হাওয়া লাগে
জড়িয়ে ধরে রহস্যময় মেঘ
তোমার স্পর্শে ,
আজ ও আমার ইচ্ছেরা জেগে ওঠে।

৩. শরীর নয় মর্মের ধ্বনি

শরীরে লাগেনি স্পর্শ লেগেছে মর্মে
বা কিছু তারও গভীরে
কিছু চিহ্ন তার নেই
সমবেদনায় জেগে আছো
ভালো মানুষের মতন
আঘাত সেও তো লাগেনি শরীরে
লেগেছে মর্মের মূলে
তোমাকে লাগে যেভাবে সংসারে
শিশুর মতন সৌম্য সাধারণে
কোনো খোলা দুপুরে
কেটেছে আমায় হিংস্র তরবারি
চূড়ান্ত বিদেশি হাওয়ার মতন লেগেছে আঘাত
লাগেনি শরীরে,লেগেছে মর্মে কিংবা আরও বেশী গভীরে
ভেতরে মুমূর্ষু হয়ে মৃতের মতন
কাঁধে তুলে নিয়েছি নিজের মৃতদেহ
নিজের শব,লেগেছে মর্মে কিংবা
তারও বেশি গভীরে,পাথর যেমন লাগে
শরীরের মর্মমূল জুড়ে কালোরক্ত
তবু যেন শরীর নয়,এ ভর্ৎসনা গূঢ় গভীরে
লাগেনি তো তোমার আঘাত
বাইরের দিকে শরীরে।

শেয়ার করুন ..

Comments are closed.




© All rights reserved © পাতা প্রকাশ
Developed by : IT incharge