সোমবার, ১৭ Jun ২০২৪, ০৪:৪৩ অপরাহ্ন

গোবিন্দ ধর এর একগুচ্ছ কবিতা

গোবিন্দ ধর এর একগুচ্ছ কবিতা

গোবিন্দ ধর এর একগুচ্ছ কবিতা

১. জ্যামিতি বাক্স ও গণিতের শূন্য
তৃতীয় শ্রেণির আগে জ্যামিতিবাক্স দেখিনি।
বাক্স খুলে তাতে কাঁটা কম্পাস
চাঁদা স্কেল ত্রিভুজ তখনো নাম জানা নেই।
অবিরত নাড়াছাড়া নাড়াঘাঁটা করতেই থাকি।
অবশেষে খেলনা হয় গণিতের জ্যামিতি।
কাঠপেন্সিলে আঁকা শূন্য মুছতে মুছতে
এখন পুরোপুরি মনে হয় শূন্যজীবন।
জ্যামিতিবাক্সের রাবার মুছতে পারে না জীবনের শূন্য।

২. ঊনকোটি
তুমিও উনকোটি কালুকামার গড়েছেন লাগে।
বাঁক দেওয়া টিলার মতো বিচিত্র রূপ আঁকা
মুখ থেকে শিখি নদীকথা।হরপার্বতীর রাতজাগা
রাইজাগানীয়া গান।
কালুকামার নিখুঁতশিল্পী,ছেনী হাতুড়ির ঘা মেরে
শিল্পকলায় এঁকে দিলো প্রিয় মুখ
আমি তাকে আগলে রাখি মরমিয়া রাই।

৩. গোপনস্তব
বাৎসায়ন-আকাশ থেকে পেড়ে আনলাম
একটুকরো চিত্রিত মেঘ
শেষ রাতে ঝমঝমিয়ে ভিজিয়ে দেবো।

৪. কমঃতরণীমোহন সিংহ
আপনার বয়ে নেওয়া পতাকা কেমন
ফিকে হয়ে যাচ্ছে দিনদিন।
রাতদিন যে মায়ায় লাল পতাকা
কৃষকের ঘরে ঘরে নিয়ে গেলেন
তার রঙ লালই ছিলো।
আপনার ঝুলনা বেগ হাওয়াই চপ্পল
এসব পুরোনো কনস্পেট
হাত মাইক্রফোনে বাংলাভাষা
আর মণিপুরি টিউন
মনুর জলীয়বাতাস ফুরফুরে করতো
রাজধরের রাতাছড়া।
কাঞ্চনমাললার কাঞ্চনদীঘি থেকে
উঠে আসতো হিমেল বাতাস।
সব মানুষের আপনি আপনজন।
হাজার মানুষের ভীড়ে আপনি মানুষ।
মনুর জল থইথই যে পতাকা
ফৎফৎ উড়িয়েছেন রাতদিন।
উড়তে উড়তে ফিকে হয়ে যাচ্ছে
একবার চোখ তুলে দেখুন।

৫. সঙ্গীতদিদিমণি
কোথায় চড়া গলায় ধরবো বলবেন
গলার উঁচুনিচু একদম বুঝি না।
নোটেশন ঠিকঠাক হলো কি না তাও
না বললে গান হয়ে ঝরবে না ।
আমার বেদনা গুলো চলুন সুর দিন
গলে গলে ঝরুক ভালোবাসা মোম।
আমার গলা তো আদিম মানবের
না সাধতে সাধতে ছাড়ছে না ঘুম।

শেয়ার করুন ..

Comments are closed.




© All rights reserved © পাতা প্রকাশ
Developed by : IT incharge